১ মাস পরও ধর্মঘট থেকে পিছু হঠতে নারাজ তেলেঙ্গানার অারটিসির কর্মীরা

0
39
মঙ্গলবার তেলেঙ্গানার অারটিসি বাস ধর্মঘটের  ৩১ দিন পরও অচলাবস্থা কাটার কোন লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না । এরই মধ্যে  থাকা ৪৮ হাজার বাস কর্মীর দাবি মানা তো দূরের কথা ৫০০০ সরকারি বাসরুট বেসরকারিকরণের  হুঁশিয়ারি দিয়ে বসেছেন মুখ্যমন্ত্রী কেসিঅার।অন্যদিকে টিএসঅারটিসির  হিসাবের সঙ্গে রাজ্য সরকারের জমা দেওয়া হিসাব না মেলায় ৭ নভেম্বর হাইকোর্টে রাজ্যের  মুখ্যসচিবকে তলব করেছে অাদালত। এক মাস হয়ে গেলেও অান্দোলন থেকে পিছু হঠতে নারাজ ধর্মঘটীরা।
৪৮ হাজার অারটিসি কর্মীর সেপ্টেম্বর মাসের বেতন পর্যন্ত দেয়নি সংস্থা।।  টিএসঅারটিসি অাদালতকে জানিয়েছে সেপ্টেম্বরের বেতন দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ২২৪ কোটি টাকা তাদের কাছে নেই। রাজ্য সরকারও হাত উপুড় করে দিয়েছে। যদি ২০১৫ সালে ১৫ কোটি টাকা সরকারি অর্থ খরচ করে যজ্ঞ করার সময় কেসিঅার এর টাকার অভাব হয়নি। মুখ্যমন্ত্রী তিরুমালার ভেঙ্কটেশ্বর মন্দিরে ৫ কোটি টাকার সোনার গয়না  দান করার সময় রাজকোষের কথা ভাবেননি। এই তালিকা অারো দীর্ঘ। শুধু তাই নয়, ৫০০ কোটি টাকার বাজেটে মুখ্যমন্ত্রী অাবাস নির্মাণের জন্য  ইতিমধ্যেই ৩৫ কোটি টাকা খরচ করতেও অসুবিধা হয় না সরকারে। শুধু টাকা নেই ৪৮ হাজার অারটিসি বাস কর্মীর জন্য।
  এর অাগে রাজ্য সরকারের তরফে হাইকোর্টে জানান হয় যেতেলেঙ্গানা রাজ্যঅারটিসির পক্ষ থেকে এক রিপোর্টে রাজ্যকে জানান হয়েছে কর্মীদের ২১টির মধ্যে ১৬টি দাবি মেনে নিতে প্রয়োজন ৪৬ কোটি ২০ লক্ষ টাকা। সেই টাকা অারটিসির কাছে নেই। রাজ্যে সরকারও সেই টাকা দিতে পারবে না। রাজ্যের দাবি তারা ইতিমধ্যেই অারটিসিকে  ৪২৩৫ কোটি টাকা দিয়ে দিয়েছে। হিসাবের এই জালে ঝুলে রয়েছে ৪৮ হাজার কর্মীর জীবন।
গত ৫ অক্টোবর থেকে বিভিন্ন দাবি দাওয়া নিয়ে ধর্মঘটে নেমেছেন ৪৮ হাজার অারটিসির বাস কর্মী। ইতিমধ্যেই তাদের ছাঁটাই করার কথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী কেসিঅার।  প্রায় ১ মাস অতিক্রান্ত হলেও রাজ্য সরকার ধর্মঘটি বাস কর্মীদের সঙ্গে অালাপ অালোচনার পথে হাঁটতে নারাজ। অারটসি কর্মীদের গত মাসের বেতন হয়নি এখনও।  সোমবার এক মহিলা বাসকর্মী অাত্মহত্যা করেছেন। এই নিয়ে এখনও পর্যন্ত ৪জন অারটিসি কর্মী অাত্মহত্যা করলেন। রাজ্যজুড়ে বাস ধর্মঘটের ব্যাপক প্রভাব পড়লেও  রাজ্যর মুখ্যমন্ত্রীর অাচরণকে হিটলারের সঙ্গে তুলনা করছেন বিরোধী দলের নেতারা।