ডিএ মামলার রিভিউ পিটিশন দাখিল করতে দেরি হওয়া রাজ্য সরকারকে তিরস্কার বিচারপতির

0
3793

 রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া মহার্ঘভাতা বা ডিএ নিয়ে গত ২৬ জুলাই স্যাটের রায় রাজ্য সরকার মানে নি । এই অভিযোগ অাগেই স্যাটে অাদালত অবমাননার মামলা দায়ের করে আইএনটিইউসি অনুমোদিত রাজ্য সরকারি কর্মচারি সংগঠন কনফেডারেশন অফ স্টেট গর্ভমেন্ট এমপ্লয়িজ। মঙ্গলবার রাজ্য সরকারের তরফে রিভিউ পিটিশন দাখিল করতে গেলে বিচারক রঞ্জিত বাগ ভর্ত্সনা করেন রাজ্য সরকারের অাইনজীবীকে। বিচারক বলেন স্যাটের রায়ের রিভিউ পিটিশন দাখিল যে ৩০দিনের মধ্যে করতে হয় তা কি জানেন না সরকারি অাইনজীবীরা। সূত্রের খবর এর পর রাজ্যের এজি কিশোর দত্ত বিচারপতিকে বলেন বিশেষ ক্ষেত্রে এই সময়ের পরও করা যায় বলে অাইনে সংস্থান রয়েছে। এর পর বিচারক রাজ্য সরকারের রিভিউ পিটিশনের নথি অাদালতে জমা দিতে বলেন। কনফেডারেশনের পক্ষে মলয় মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন তাদের করা অাদালত অবমাননার মামলাটির শুনানি অাগামী ৯ ডিসেম্বর হবে। সূত্রের খবর ওইদিনই রাজ্য সরকারের রিভিউ পিটিশনেরও শুনানি হতে পারে ।

গত ২৬ জুলাই  রাজ্য সরকারকে কর্মচারিদের বকেয়া ডিএ মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল স্যাট।  স্যাটের নির্দেশ জারির ৩মাসের মধ্যে বকেয়া ডিএ কীভাবে দেওয়া হবে নিয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে রাজ্য সরকারকে জানাতে বলেছিল ট্রাইব্যুনাল। স্যাট বলেছিল বকেয়া ডিএ সরকারি কর্মচারিদের ন্যায্য পাওনা এবং কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া  ডিএ দিতে হবে।স্যাটের নির্দেশ ছিল,বকেয়া ডিএ  ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে অথবা কর্মীদের পিএফের সঙ্গেও দেওয়া যেতে পারে। স্যাটের নির্দেশ ছিল নতুন বেতন কমিশন শুরুর আগেই বকেয়া ডিএর বিষয়ে রাজ্য সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

স্যাটের নির্দেশের ৩মাস অতিক্রান্ত হওয়ার পরেও যেহেতু রাজ্য সরকার কোন সিদ্ধান্ত জানায় নি তাই এটাকে আদালত অবমাননা বলে মনে করছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের ইউনিয়ন কনফেডারেশন। ওয়াকিবহাল মহলের অনেকেই মনে করছেন অাইন অাদলতে বিষয়টি অাটকে রাখার চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার। তবে অাদালতে বিচারপতি  এদিন রাজ্য সরকারকে যেভাবে তিরস্কার করেছে তা থেকে স্পষ্ট রাজ্য সরকারের অাচরণে অাদালত বিরক্ত।